কুষ্টিয়ায় সুলতান খন্দকারের খুনিদের গ্রেপ্তার এবং বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন

News Editor
প্রকাশ: ১ বছর আগে

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ পূর্ব বিরোধের জের এবং টাকা ছিনিয়ে নিতে বাঁধা দিলে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে খুন হন কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মোশারফপুর গ্রামের সুলতান খন্দকার নামে এক গাড়ী ব্যবসায়ী। এই ঘটনায় গত চারদিনেও মামলার মূল আসামী গ্রেপ্তার না হওয়ায়, বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। রোববার (১২ ফেব্রুয়ারী-২৩) দুপুর বারোটার সময় কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মোশারফপুর এলাকা থেকে কয়েক হাজার এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল সহকারে মিরপুর বাজারে এসে মানববন্ধনে মিলিত হয়। এসময় মানববন্ধনে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে স্থানীয় কাউন্সিলর সহ সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধনে বক্তারা চারদিনেও মামলার মূল আসামী গ্রেপ্তার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।একই সাথে আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার ও তাদের বিচারের দাবি করেন। দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার করা না হল, সামনের দিনে আরও বড় আন্দোলনের কর্মসূচি দেওয়ার আল্টিমেটাম দেন বক্তারা। উল্লেখ্য, পূর্ব বিরোধের জেরে গাড়ী ব্যাবসায়ী সুলতানের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায় সুলতানের প্রতিপক্ষ প্রতিবেশি শাহিন আলী এবং তার সহযোগীরা। এসময় সুলতানের কাছে থাকা ৭ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিতে গেলে বাঁধা দেয় সুলতান, এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে সুলতানের পেটে ছুরিকাঘাত করে শাহিন। গুরুতর আহত অবস্থায় সুলতানকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিলে ওই দিনই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত তিনটার দিকে সুলতানের মৃত্যু হয়। নিহত সুলতান খন্দকার কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মোশারফপুর গ্রামের খন্দকার আব্দুর রশিদের ছেলে। এ ঘটনায় ৭ জনকে আসামি করে মিরপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে।

আইন আদালত এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন:
কুষ্টিয়ায় জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালিত মোঃ জিয়াউর রহমান কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ বিনামূল্যে আইনি সেবার দ্বার উন্মোচন’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে কুষ্টিয়ায় বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে কুষ্টিয়া জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্যোগে শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) সকাল ১০টায় জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্বরে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে দিবসের কর্মসূচী শুরু করা হয়। পরে আদালত চত্বর থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ফের আদালত চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এবং জেলা আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান এবং জেলা ও দায়রা জজ রুহুল আমীন, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ কেরামত আলী, স্পেশাল জজ আশরাফুল ইসলাম, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আ. ন. ম. আবু জর গিফারী, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট নুরুল আলম দুলাল, পাবলিক প্রসিকিউটর অনুপ কুমার নন্দী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে আইনজীবী ও বিচার বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অংশ নেন।
১ বছর আগে