জামালপুরের মেলান্দহ চরপলিশায় দারুল আরকাম এবতেদায়ী মাদ্রাসায় রমরমা নিয়োগ বানিজ্য -দেখার কেউ নাই

News Editor
প্রকাশ: ১ বছর আগে

জেলা প্রতিনিধিঃ জামালপুর

উপজেলার ৭নংচরবানী পাকুরিয়া ইউনিয়নের ১নংওয়ার্ডের অন্তরগত চরপলিশা পু্র্বপাড়া তালতলা মোড় সংলগ্ন দারুল আরকাম মাদ্রাসাটি২০১৭ইংসাল থেকে সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসলেও বর্তমানে দায়িত্বরত শিক্ষকগনরা শিক্ষক নিয়োগ থেকে শুরু করে মনগরা ভাবে কোন রকম নিয়ম তোয়াক্কা নাকরে কোচিং বাণিজ্য করে আসছেন বলে ম্যানেজিং কমিটি সুএে অভিযোগ পাওয়া যায়! এছাড়াও গত১০এপ্রীলে উক্ত মাদ্রাসায় একজন পরিচ্ছন্ন কর্মী নিয়োগের বিষয়টি রহস্যময় বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগের ভিওিতে গন মাদ্ধম কর্মীরা গত ২৯ মে ২০২৩ইংরোজ সোমবার সকাল ১১টার সময়ে মাদ্রাসার বর্তমমনদায়িত্বরত শিক্ষক মাওলানা রুহুল আমিন ও শিক্ষক ইজাহারুল ইসলামের নিকট নিয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে তারা জানান যে পরিচ্ছন্ন কর্মী নিয়োগের বিষয়টি সম্পুর্ণ ভাবে জেলা প্রশাসক মহদয়ের দায়িত্বে এবং নিয়োগটি জেলা প্রশাসক নিজেই দিয়েছেন শিক্ষক রুহুল আমিন ও ইজহারুল আরো বলেন শুধু তাই নয় জেলা প্রশাসক নিয়োগ বোর্ডের সভাপতিও ছিলেন বটে।নিয়োগ বিষয়ে জামালপুর জেলা প্রশাসকের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি বলেন নিয়োগ বিষয়ে কোন প্রকার অবগত ছিলেন না বলে সাংবাদিকদের জানান। এ ব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোখলেছুর রহমান বুলবুলের সাথে কথা হলে তিনি বলেন নিয়োগ দিয়েছেন ইসলামি ফাউন্ডেশন আমিও কিছুই জানি না এবং আমাকে জানানোও হয়নি। মাদ্রাসার পাশাপাশি বসবাস কারি ৭নংইউপির নৌকা কান্ডারী আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের সুনাম অর্জনকারী সভাপতি দক্ষ রাজনৈতিক সংগঠক মোঃতারা আকন্দ ভিডিও সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকলেও অথচ মাদ্রাসার কোন বিষয়ে আমাকে জানানো হয়না নিয়োগ বিষয়টি মনগরা বলে তিন মত প্রকাষ করেন।উক্ত মাদ্রাসার দায়িত্ব প্রাপ্ত ম্যানেজিং কমিটির মদস্যও ১নংওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার আনিছুর রহমান রিপন বলেন নিয়োগ বিষয়ে আমাকে জানানো হয়নি বলে অভিযোগ করেন।তিনি আরও বলেন নিয়োগের ব্যাপারে শুধু ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জানেন।

বিষয়টি সরেজমিনে গিয়ে এলাকার নানা মহলে হাজারো মানুষের মুখে গুঞ্জন ও বিভিন্ন প্রশ্ন বিদ্ধ করে বিষয়টিএলাকায় তোলপারের সৃষ্টি হওয়ার গন মাদ্ধমের কর্মীরা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের নিকট নিয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন শুরু কমিটির সভাপতি মহোদয় জানেন পরিচ্ছন্ন কর্মী নিয়োগের বিষয়ে ইসলামি ফাউন্ডেশনের ময়মনসিংহ বিভাগের ডিডি মহদয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন নিয়োগ দিয়েছেন প্রকল্পের ঢাকা মহাপরিচালক মহদয় তিনি আরও বলেন নিয়োগ বিষয়ে সমস্যা? এ বিষয়ে মহাপরিচালক ছাড়া আর কারও কোন দায়িত্ব নাই। তিনি বলেন আমি নিয়োগ বোর্ডে ছিলাম শুধু তাই নয় স্থানীয় ভাবে নিয়োগ প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলেও জানান।বর্তমানে নিয়োগ বানিজ্যের বিষয়টি রহস্যময় ওবেলা ৪ টার পর নিয়োমিত কোচিং বাণিজ্য করায় এহেন কর্মকান্ডের প্রতিবাদে মুলরহস্য উদঘাটন করে এলাকার সুধী ব্যক্তী বর্গ ওম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের তীব্র প্রতীবাদ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ তদন্তের জোরালো দাবিতে পরিনিত হয়েছে।