সোনারগাঁয়ে ব্যবসায়ীর চুয়াল্লিশ লক্ষ উনা নব্বই হাজার টাকা প্রতারনা করে আত্মসাৎ থানায় অভিযোগ

News Editor
প্রকাশ: ১ বছর আগে

সোনারগাঁও প্রতিনিধি।

সোনারগাঁয়ে প্রতারণার অভিনব ফাঁদ পেতে ৪৪,৮৯ ০০০/-হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে নি:স্ব করেন।
সোনারগাঁয়ের এক ফার্মেসী ব্যবসায়ী আ: হালিম কে প্রতারক উজ্জ্বল, সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের বড় নয়াগাঁও এলাকার মোস্তফা মিয়ার ছেলে উজ্জ্বল রানা, প্রথমে ফার্মেসী ব্যবসায়ী আ: হালিমের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করে পরে মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রির ভূয়া চুক্তিনামা দলিল করে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চুয়াল্লিশ লক্ষ উনা নব্বই হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মসাৎ করে আত্ম গোপন করেন প্রতারক উজ্জ্বল রানা।
এ বিষয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ফার্মেসী ব্যবসায়ী আ: হালিম

অভিযোগ সূএে জানা যায়- বিবাদী প্রতারক উজ্জ্বল রানা কিছু দিন পূর্বে আমাকে ব্যবসায়ে বিনিয়োগ করার জন্য জানায় এবং আমি তাহার সাথে ব্যবসা করিবো কিনা জিজ্ঞাসা করে তখন আমি বিবাদীর প্রস্তাবে রাজি হইলে বিবাদী বিভিন্ন তারিখ ও সময়ে বর্নিত বিবাদীর ২য় স্ত্রী রেহেনা আক্তার (২৫) স্বামী উজ্জ্বল রানা, ৩য় স্ত্রী ইভা ( ২৬) স্বামী ঐ উভয় সাং বড় নয়াগাও ব্যাংকের মাধ্যমে এবং নগদ সর্বমোট ৪৪,৮৯,০০০/- টাকা প্রদান করি, পরবর্তীতে দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ার পরেও বিবাদী আমাকে কোন লভ্যাংশ প্রদান করে নাই, এরই এক পর্যায়ে উপরোক্ত বিবাদী উজ্জ্বল রানা আমাকে দুইটি চেকে আমার নামে (০৪) চার কোটি করিয়া মোট( ০৮) আট কোটি টাকা আমার এ্যাকাউন্টে আসিয়াছে বলে দুইটি চেক প্রদান করে উক্ত টাকা উত্তোলন করিতে হইলে আমার মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের সাথে ব্যবসায়ীক চুক্তি করিতে হইবে বলে জানাইয়া বিবাদী উজ্জ্বল রানা নিজেই আমার নিকট মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ লি: এর সাথে একটি চুক্তিনামা দলিল উপস্থাপন করেন,যেখানে মেঘনা গ্রুপের মালিক জনৈক মোস্তফা কামালের নাম উল্লেখ্য রহিয়াছে, পরে বিবাদী উজ্জ্বল রানা আমার নিকট হইতে মোট ৪৪,৮৯,০০০/- চুয়াল্লিশ লক্ষ উনানববই হাজার টাকা গ্রহণ করার পর এখনো পর্যন্ত কোন লভ্যাংশ এবং আমার কাছ থেকে নেয়া টাকা ফেরৎ না দিয়া টালবাহানা করিতে থাকে বিবাদী উজ্জ্বল রানা আমার টাকা ফেরৎ না দেয়ায় বিসয়টি আমি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানাইলে তাহারা বিবাদীকে একাধীকবার টাকা ফেরৎ দেয়ার জন্য বলিলেও কাহারো কোন কথা কর্নপাত করে নাই।এরই ধারাবাহিকতায় ইং ২৫/০৪/২০২৩ তারিখ সকাল অনুমান ১০:৩০ ঘটিকার সময় আমি উপরোক্ত ১ নং বিবাদীর বসত বাড়িতে গিয়া আমার পাওনা টাকা ফেরৎ চাইলে বিবাদীরা আমার নিকট হইতে নেয়া টাকা ফেরৎ দিবেনা বলে জানাইয়া বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি সহ হুমকী প্রদান করেন। তখন আমি বিবাদীকে মৌখিক ভাবে প্রতিবাদ করলে আমাকে মারধর করার জন্য উদ্যত হয়। একপর্যায়ে বিবাদীরা আমাকে এই বিষয় নিয়া বাড়াবাড়ি করিলে আমার এবং আমার পরিবারের বড় ধরনের ক্ষতি করিবে বলে হুমকি ধামকি প্রদান করিয়া তাহাদের বসতবাড়ীনথেকে বাহির করিয়া দেয় বিবাদীরা পরস্পর যোগসাজশে আমার নিকট হইতে ব্যবসার কথা বলিয়া মোট ৪৪,৮৯,০০০/- চুয়াল্লিশ লক্ষ উনানববই হাজার টাকা গ্রহণ করিয়া আত্মসাৎ করার পায়তারা করিয়া আসিতেছে

এবিষয়ে ১৫ মে সোমবার গনমাধ্যমকে ভুক্তভোগী ফার্মেসী ব্যবসায়ী আ: হালিম জানান আমার সারা জীবনের অর্জিত সম্পদ প্রতারক উজ্জ্বল রানা প্রতারনা করে আমাকে রাস্তার ফকির বানিয়ে দিয়েছে এই প্রতারককে আইনের আওতায় আনারনজন্য প্রসাসনের উর্ধধতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এবং আরো বলেন আমার কাছে যথেষ্ট মোবাইল কল রেকর্ড সহ ব্যাংক রিসিট প্রমান স্বরূপ রয়েছে এগুলো উক্ত মহা মান্য আদালতে পেশ করে প্রতারক উজ্জ্বলের শাস্তি দাবি সহ পাওনা টাকা আদায়ে ভুমিকা রাখবে বলে জানান-
সোনারগাঁ থানা অফিসার ইনচার্জ মাহবুব আলম সুমন বলেন এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে